এবার কিবোর্ডে বাংলা লিখলে অটোমেটিক ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে | Keyboard Secret Tricks

কি করলে কিবোর্ডে বাংলা লিখলে তা ইংরেজিতে উঠবে, কি করলে কিবোর্ডে বাংলা লিখলে তা অটোমেটিক ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে উঠবে তা নিয়ে আজকের আর্টিকেল। অর্থাৎ এই আর্টিকেল পড়ার মাধ্যমে কিভাবে সরাসরি কিবোর্ডে বাংলা ইংরেজিতে ট্রান্সলেট করতে হয় তা জানতে পারবেন। 


মোবাইলে লেখালেখির জন্য প্রথমেই আমাদের যেটি দরকার হয় সেটি হচ্ছে কিবোর্ড। কিবোর্ড দিয়ে আমরা বাংলা, ইংলিশসহ সব ধরনের লেখা লিখে থাকি। 


মোবাইলে টাইপিং একটু দ্রুত করার জন্য আমরা বিভিন্ন ধরনের কিবোর্ড ব্যবহার করে থাকি আমাদের সুবিধার্থে। যেমনঃ কেউ রিদিমিক কিবোর্ড ব্যবহার করেন, কেউ গুগল কিবোর্ড আবার কেউ ব্যবহার করেন ফোনের ডিফলট কিবোর্ড। কিন্তু অনেক কিছুই রয়েছে যা আমরা সরাসরি কিবোর্ডের মাধ্যমে করতে পারি না। তার জন্য আমাদের বিভিন্ন টুলস ব্যবহার করতে হয়। 


যার মধ্যে অন্যতম হলো আমরা কিবোর্ডের মাধ্যমে কোনো কিছু ট্রান্সলেট করতে পারি না।




কিভাবে কিবোর্ড দিয়ে সরাসরি বাংলা লেখা ইংরেজিতে ট্রান্সলেট করব

যাই হোক। অনেক সময় দেখা যায় আমরা যখন ভিনদেশি কোনো লোকের সাথে ইংরেজিতে কথা বলতে যাই তখন ইংরেজিতে এক্সপার্ট না থাকায় কিংবা ইংরেজি বলতে না পারায় আমরা তাদের সাথে বেশিক্ষণ কথা চালিয়ে যেতে পারি না।


আচ্ছা ভিনদেশীর কথা না হয় বাদই দিলাম! এমনো অনেক সময় আসে যখন কোনো জরুরি কাজ আমাদের ইংরেজি ভাষা দিয়ে করতে হয়। যেমনঃ যদি কোনো বাংলাদেশির একটি ইংলিশ আর্টিকেলের কথা বলি তাহলে দেখা যাবে বেশিরভাগ লোকই প্রথমে আর্টিকেলটি ইংরেজি লিখে তারপর সেটি গুগল ট্রান্সলেটের মাধ্যমে ইংরেজি ট্রান্সলেট করে। কিন্তু সরাসরি বাংলা বললে যে সেটি ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে এরকম চিন্তা ভাবনা তাদের মাথায় আসে না। 

আচ্ছা আর্টিকেলের কথা না হয় বাদই দিলাম যেহেতু এটা গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করে চালিয়ে নেয়া যায়। আবার পুর্বে ফিরে গেলাম অর্থাৎ যখন আপনি কারো সাথে ইংরেজিতে কথা বললেন তখন কিন্তু আপনি বেশিক্ষণ এই গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার করে কথা চালিয়ে নিতে পারবেন। কেননা বারবার টাইপিং তারপর গুগল ট্রান্সলেট ব্যবহার এসব করতে করতে একসময় আপনি হাপিয়ে যাবেন এবং বিরক্তিবোধ করবেন। 


কি করলে কিবোর্ডে বাংলা লিখলে তা ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে 

যারা সাধারণত ইংরেজি বলতে না পারা স্বত্তেও ফ্রিল্যান্সিং করেন, তারাই সবচেয়ে ভালো জানেন একজন বায়ারের সাথে ইংরেজিতে কথা বলা কতটা কষ্টকর। 


তো যাই হোক এবার মূল কথায় ফেরা যাক— কিভাবে আপনারা এই সমস্যা থেকে মুক্ত হবেন অর্থাৎ


কিভাবে কিবোর্ডে বাংলা লিখলে তা অটোমেটিক ইংরেজি হয়ে যাবে। 

দেখুন এখানে শুধু বাংলা শব্দই কেবল ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হবে এমনটি কিন্তু নয়। আপনি যে ভাষায় লিখুন না কেন হোক সেটা হিন্দি সেটা ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে। 


কিবোর্ড বাংলা লিখব এবং তা ইংরেজিতে উঠবে অর্থাৎ ইংরেজিতে ট্রান্সলেট করার জন্য প্রথমে আমাদের একটি প্রয়োজন হবে কিবোর্ডের। এক্ষেত্রে ফোনের ডিফল্ট কিবোর্ড দিয়ে এই কাজটি হবে না। এজন্য আমাদের অন্য একটি কিবোর্ড ব্যবহার করতে হবে। 


কিবোর্ডে বাংলা লিখলে ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে এমন কিবোর্ড 

কিবোর্ডে বাংলা লিখলে তা ইংরেজিতে উঠবে এই কাজটির জন্য আমাদের প্রয়োজন হবে গুগল কিবোর্ড (Gboard)। বর্তমানের সব ফোনগুলোতেই গুগল কিবোর্ড বা জি বোর্ড ডিফল্টভাবেই আছে। তবে যদি কারো ফোনে গুগল কিবোর্ড না থাকে তাহলে আপনারা নিচের লিংক থেকে কিবোর্ডটি ডাউনলোড করে নিবেন। 



কিবোর্ডে বাংলা লিখলে তা ইংরেজিতে উঠবে এই সিস্টেম করার উপায়

আসলে জিবোর্ড (Gboard) ডাউনলোড করে বাংলা লিখলেই ইংরেজিতে উঠবে এমনটি ভুলেও ভাববেন না। গুগল তো আর আপনার মনের কথা জানে না যে আপনি কোনো লেখা লিখলেই তা ইংরেজি ভাষায় ট্রান্সলেট হতে হবে এটা জানবে তাই না! 


এর জন্য আমাদের কিছু সেটিংস ঠিক করতে হবে। যা করলে আপনি যেকোনো ভাষাই লেখুন না কেন তা অটোমেটিক ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে। আর এখানে এই সেটিংসগুলোই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। তাই মনোযোগ সহকারে নিচের সেটিংসগুলো দেখবেন। 


কিবোর্ডে যেকোনো লেখা লিখলে তা ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে 

তো আপনি যদি প্রথমবার জিবোর্ড ব্যবহার করার জন্য জিবোর্ড ইন্সটল করেন তাহলে প্রথমে সেটিংস এ গিয়ে জিবোর্ড অন করে নিবেন। 

এখন নিচের স্টেপগুলো ফলো করুন 


স্টেপ ১. আপনার ফোনের এমন এক জায়গায় যান যেখানে গেলে টাইপিং করার জন্য কিবোর্ড আসবে। যেমনঃ ম্যাসেঞ্জার। এরপর জি-বোর্ড'টি আসলে নিচের স্ক্রিনশট এর মতো সেটিংস আইকনে ক্লিক করবেন। 



স্টেপ ২. এরপর Languageses এ ক্লিক করবেন। 



স্টেপ ৩. এরপর Add Keyboard 



স্টেপ ৪. এরপর Bangla খুঁজে বের করবেন এবং বাংলার উপরে ক্লিক করবেন। তারপর Bangla (Bangladesh) সিলেক্ট করবেন। ইন্ডিয়া থেকে হলে Bangla (India) সিলেক্ট করবেন। 



স্টেপ ৫. এরপর নিচের স্ক্রিনশট এর মতো কিবোর্ড এর ধরন দেখতে পারবেন। সেখান থেকে আপনি আপনার পছন্দমতো যেকোনো একটি সিলেক্ট করে নিবেন। 



স্টেপ ৬. এরপর সেখান থেকে বেরিয়ে আসবেন। তারপর নিচের স্ক্রিনশট এর মতো 3dot আইকনে ক্লিক করবেন। 



স্টেপ ৭. এরপর Translate এ ক্লিক করবেন। 



স্টেপ ৮. এরপর নিচের স্ক্রিনশট এর মতো ডান পাশে চিহ্নিত করা যায়গায় ক্লিক করবেন। 



স্টেপ ৯. এরপর আপনার লেখাগুলো যে ভাষায় ট্রান্সলেট করতে চান তা সিলেক্ট করুন। আমরা যেহেতু ইংরেজিতে ট্রান্সলেট করতে চাচ্ছি তাই English সিলেক্ট করবেন। 



স্টেপ ১০. এরপর স্ক্রিনশট এর মতো আইকনটিতে ক্লিক করবেন। তাহলে কিবোর্ডটি বাংলা হয়ে যাবে। 



স্টেপ ১১. তো এখন আপনি যাই লিখবেন তা অটোমেটিক ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে এবং লেখাগুলো ইংরেজিতে উঠবে। নিচের স্ক্রিনশট এর মতো। 




বিঃদ্রঃ টাইপিং করার সময় অবশ্যই ফোনের ইন্টারনেট কানেকশন অন করতে হবে


তো গাইজ, এই ছিল কিবোর্ডে বাংলা লেখা লিখলে তা অটোমেটিক ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে তার পদ্ধতি। আশা করি আপনারা উপরের সেই পদ্ধতিটি বুঝতে পেরেছেন। 


এখন থেকে আপনারা এই কিবোর্ডের মাধ্যমে যেকোনো লেখা লিখলেই তা অটোমেটিক ইংরেজিতে উঠবে। এখন আপনি যেকারো সাথেই তার ভাষায় আরামসে চ্যাটিং করতে পারবেন। ইংরেজিতে লেখালেখি সম্পর্কিত আপনার সকল কাজ সম্পন্ন করতে পারবেন। 



আমাদের শেষ কথাঃ 

আজকের আর্টিকেলে আমরা দেখিয়েছি কিভাবে কিবোর্ডে কোনো লেখা লিখলে তা ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে যাবে তার পরিপূর্ণ পদ্ধতি। আর এই পদ্ধতিটি যে শুধুমাত্র বাংলা লিখলে হবে তা কিন্তু নয়।


আপনি যে ভাষায় লিখুন না কেন তা ইংরেজিতে ট্রান্সলেট হয়ে উঠবে। 


আর আপনি ইংরেজি ছাড়াও আপনার লেখা অন্যান্য ভাষাতে ট্রান্সলেট করে লিখতে পারবেন। যদি হিন্দিতে ট্রান্সলেট করতে চান তাহলে English  এর জায়গায় হিন্দি দিবেন। তাহলে আপনার লেখাগুলো হিন্দিতে ট্রান্সলেট হয়ে হিন্দি অক্ষরে উঠবে। 


তো এই ছিল আজকের আর্টিকেল। আশা করি আপনারা উপরের সমস্ত সেটিংসগুলো বুঝতে পেরেছেন। আর হ্যা, যদি কোথাও বুঝতে অসুবিধা হয় তাহলে অবশ্যই নিচের কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাবেন। এতক্ষণ সাথে থাকার জন্য অনেক ধন্যবাদ। 

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url